কি কি কারনে কম্পিউটার রিস্টার্ট হয়

> অতিরিক্ত তাপমাত্রার কারনে
> Ram এর কারনে
> HardDisk এর কারনে
> USB এর কারনে
> অপারেটিং সিস্টেমের কারনে
> Hardware এর কারনে
> সফটওয়্যার ও গেমসের কারনে
> ভাইরাসের কারনে

এবার বিস্তারিত:

 

.       অপারেটিং সিষ্টেমের জটিলতা : অনেক সময় অপারেটিং সিষ্টেমে জটিলতা দেখা দিলে বা অপারেটিং সিষ্টেম ক্র্যাশ করলে পিসি রিষ্টার্ট হয়। উইন্ডোজের ডিফল্ট সিস্টেমে অপারেটিং সিস্টেমে কোনো সমস্যা হলে পিসি রিষ্টার্ট নেয়। ডিফল্ট সিস্টেম বন্ধ করতে মাই কম্পিউটারে ডান ক্লিক করে properties থেকে Advanced tab/Startup and Recovery/Settings অপশনে যান। এখন System Failure অপশনের অন্তর্গত Automatically Restart অপশন থেকে টিক চিহ্ন উঠিয়ে Ok করুন।
.       ভাইরাসের আক্রমণ: বিভিন্ন ধরনের ভাইরাসের কারণেও পিসি রিষ্টার্ট নিতে পারে। এ জন্য পিসিতে সব সময় হালনাগাদ (আপডেট) অ্যান্টিভাইরাস ব্যবহার করুন। নিয়মিত রুটিন করে পিসি স্ক্যান করুন।
.       হার্ডওয়্যারের সমস্যা: নতুন কোনো হার্ডওয়্যার সংযুক্ত করলে এবং সেটি পিসির সঙ্গে অসামঞ্জস্য হলে এ সমস্যা দেখা দিতে পারে। পুরোনো হার্ডওয়্যারের সংযোগে ক্রটি দেখা দিলে পিসি অহেতুক রিষ্টার্ট নিতে পারে। এ জন্য হার্ডওয়্যারের সংযোগস্থল চেক করে দেখুন, ঠিক আছে কিনা।
.       নতুন প্রোগ্রাম ইনস্টলের কারণে: অনেক সময় কিছু সফটওয়্যার, গেমস ইনস্টল করার কারণে পিসি রিস্টার্ট নেয়। আপনার পিসির কনফিগারেশনের সঙ্গে যদি কাঙ্ক্ষিত সফটওয়্যার, গেমস সামঞ্জস্যপূর্ন না হয়, তাহলে এ সমস্যা দেখা দিতে পারে। তাই বুঝেশুনে প্রোগ্রাম ইনস্টল করুন।
.       হার্ডডিস্কের ক্রটি: হার্ডডিস্কে ক্রটিপূর্ন সমস্যা দেখা দিলে পিসি রিস্টার্ট নিতে পারে। ক্রটির কারণে হার্ডডিস্ক ডেটা রিড করতে পারে না। এর ফলে পিসি হ্যাং অথবা রিস্টার্ট হতে পারে। এ জন্য হার্ডডিস্ক স্ক্যান করে ক্রটিপুর্ন স্থান (ব্যাড সেক্টর) চিহ্নিত করতে পারেন।

কি ভাবে রিস্টার্ট বন্ধ করা যায়?
আপনার পিসি বুট, এবং উইন্ডোজ লোগো নেভিগেশন আসে আগে, বারবার টিপুন এবং বুট মেনু প্রদর্শিত না হওয়া পর্যন্ত F8 মুক্তি. সেফ মোড নির্বাচন করুন.

টাইপ sysdm.cpl এবং sysdm.cpl নির্বাচন; উইন্ডোজ সেফ মোডে চালানো সম্ভব হলে, (উইন্ডোজ 8, অনুসন্ধান কবজ ব্যবহার এক্সপি ইন, স্টার্ট> রান এ ক্লিক করুন) স্টার্ট বাটনে ক্লিক করুন.

উন্নত ট্যাবে ক্লিক করুন, এবং (ডায়লগ বক্স এর অন্য দুটি “সেটিংগুলি” বাটন থেকে ভিন্ন) তারপর ‘প্রারম্ভ ও রিকভারি’ অধীন সেটিংস বাটন ক্লিক করুন. পুনরায় আরম্ভ স্বয়ংক্রিয়ভাবে আনচেক.

অনেক ভাবে কম্পিউটার রিস্টার্ট করা যায়।

> মাউসর মাধ্যমে start থেকে turn off/restart -এ ক্লিক করে রিস্টার্ট করা যায়।
> কিবোডের্র মাধ্যমে windows বোতাম চেপে u চাপুন।
> তারপর r চাপতে হবে।(windows key+u+r) ।
> নির্দেশ বা কমান্ডের মাধ্যমে start থেকে run /shut down -r-t2 লিখে এন্টার দিতে হবে। অর্থ্যাৎ run এ গিয়ে
> রান এ shut down লিখে -r-t এরপর আপনার পছন্দমত সময় দিয়ে এন্টার পিসি বন্ধ বা রিস্টার্ট করা য়ায়।

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s